রাতে দেরিতে বাড়ি ফেরায় স্বামীকে কোপালো স্ত্রী!

স্বামীকে কোপালো স্ত্রী

ফেনীর দাগনভূঞায় রাতে দেরিতে বাড়ি ফেরায় ছালাউদ্দিন মিস্টার (৪২) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করছে তার স্ত্রী কাজল বেগম (৩০)। সোমবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে স্ত্রী কাজল বেগমকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়েছে। পুলিশ ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পশ্চিম চণ্ডিপুর গ্রামের আহছান উল্যার বাড়ির মৃত আবদুল খালেকের ছেলে রাজমিস্ত্রি ছালাউদ্দিন মিস্টারের সাথে প্রায় ১৫/১৬ বছর আগে মিরসরাই উপজেলার বাইল্যান্দি গ্রামের মিয়া চাঁন বৈদ্যের বাড়ীর নুর আহাম্মদের মেয়ে কাজল বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্ত্রী উৎশৃঙ্খল চলাফেরা করতেন। নিষেধ করলেও কোন কথা শুনতেন না।

 

গত ১১ অক্টোবর রাত ৯টার সময় পরিবারের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বাড়িতে ঢুকে স্ত্রীকে বসত ঘরের দরজা খুলে দেয়ার জন্য বলেন। পরে তার মেয়ে ঘরের দরজা খুলে দেয়।

 

 

এমন সময় দেরিতে কেন এসেছে এমন প্রশ্ন তুললে স্বামী-স্ত্রী দুজনের মধ্যে বাক-বিতন্ডা শুরু হয়। বাক-বিতন্ডের এক পর্যায়ে স্ত্রী কাজল বেগম বটি দিয়ে স্বামী ছালাউদ্দিনকে এলোপাথাড়ী মুখে ও ঘাড়ে পরপর কয়েকবার কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

 

এ সময় মুখের বাম পাশের একটি দাঁত পড়ে যায় এবং দুইটি দাঁত ভেঙ্গে গুরুতর জখম প্রাপ্ত হন। আহত স্বামীর চিৎকারে বাড়ির অন্যান্য লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে দাগনভূঞা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

 

তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় ফেনী থেকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আহত ছালাউদ্দিন মিষ্টারের ভাই আনোয়ার হোসেন জানান, তার ভাইয়ের অবস্থা ভালো নয়।

 

দাগনভূঞা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আসলাম সিকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মামলা দায়ের হয়েছে ওই গৃহবধূকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!