মোবাইল ঢুকলো কিভাবে ভোটকেন্দ্রে প্রশ্ন ওমর সানির

কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে গতকাল শুক্রবার দিনভর শিল্পী সমিতির ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে রাত ১টার দিকে। শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি পদে মিশা সওদাগরের বিপরীতে লড়েছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী।
তবে শেষ পর্যন্ত লড়াইয়ে জয়ী হতে পারেননি প্রিয়দর্শিনী খ্যাত এই চিত্রনায়িকা। ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর দেখা যায়, ১০২ ভোটের ব্যবধানে মিশা সওদাগরের কাছে হেরেছেন মৌসুমী।

নির্বাচন প্রসঙ্গে এশিয়াবিডির সঙ্গে কথা বলেছেন মৌসুমীর স্বামী চিত্রনায়ক ওমর সানী। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে কি-না এ বিষয়ে আমি কথা বলতে চাই না। প্রশাসনের ওপর আমি যথেষ্ট পরিমাণে খুশি, নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু হয় সে বিষয়ে তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। আমার একটাই প্রশ্ন, সকাল থেকে ভোটকেন্দ্রে সোহেল রানার মতো অভিনেতার মোবাইল নিতে দিলো না। ওমর সানীর মোবাইল নিতে দিলো না বা কারও মোবাইলই নিতে দিলো না। কিন্তু বিকেল তিনটার পর ভোটকেন্দ্রে মোবাইল ঢুকলো কীভাবে?’
ওমর সানী বলেন, ‘আমার কাছে এমন অসংখ্য প্রমাণ আছে যারা কিনা ফোন নিয়ে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করেছে। এবং তারা কাকে ভোট দিয়েছে তা ছবি তুলে রেখেছে, এটা কেন হলো? এত কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মাঝেও তারা কীভাবে ফোন নিয়ে ভোটকেন্দ্রে গেল। যে যেভাবে ভোট দিয়েছে, তার ছবি তুলেছে। প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ এই কাজটি করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করার কারণে অনেক ঘটনাই ঘটে গেছে। তাছাড়া বিকেলের পর হঠাৎ একসঙ্গে অনেক ভোটার ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে প্রবেশ করেছিল, এটা কেন?’
আপনারা কি ভোটের ফলাফল নিয়ে আপিল করবেন?- এমন প্রশ্নের জবাবে ওমর সানী বলেন।‘এ বিষয়ে আমি এখনই কিছু বলতে পারছি না। রাতটা অন্ধকার হলেও সকালটা অনেক সুন্দর। একটা কথাই বলতে চাই, সবচেয়ে বড় আপিল সৃষ্টিকর্তার কাছে করলাম।’

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!