অযোধ্যা বিতর্ক: অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে একগুচ্ছ নিষেধাজ্ঞা জারি প্রশাসনের

বহু বিতর্কিত অযোধ্যা মামলা বিতর্কে কড়া অবস্থান নিল উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন। মামলা নিষ্পত্তির আগে আগামী ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেব-দেবী নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে কোনও পোস্ট দেওয়া যাবে না, জারি করা হয়েছে এমন ফরমান। উত্তরপ্রদেশ সরকার চার পাতার একটি নোটিশ জারি করেছে। সেখানেই এই নির্দেশ জানানো হয়েছে।
সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে হোয়াটস অ্যাপ, ফেস বুক, টুইটার, ইন্সটাগ্রামে দেব-দেবী নিয়ে বিতর্কিত আলোচনার বন্ধের ওপর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ৩১ অক্টোবর অযোধ্যা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনুজ কুমার ঝা জেলা জুড়ে নোটিশ জারি করেছেন। সেখানে বলা হয়েছে এই আদেশ ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। কেউ এই আইন অমান্য করলে লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারা অনুযায়ী মামলা করা যাবে।
পাশাপাশি আদেশে বলা হয়েছে, জেলা প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া জেলার কোথাও কোন দেব-দেবীর মূর্তি স্থাপন করা যাবে না। সেইসঙ্গে আদেশে আরও বলা হয়েছে, ছটপুজো, কার্তিক পূর্ণিমা, পঞ্চকোশি পরিক্রমা, চৌধুরী চরণ সিং জন্মশতবার্ষিকী, গুরু তেগ বাহাদুর শহিদ দিবস, ইদ-উল-মিলাদ, খ্রিসমাস এই সমস্ত উৎসবের কথা মাথায় রেখে এই নির্দেশ জারি করা হল।
এই নির্দেশ প্রথমে গত ১০ অক্টোবর প্রকাশ করা হয়। পরে সেটিকে সংশোধন করে সর্ব সাধারণের কাছে তুলে ধরা হয়। একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, জেলা প্রশাসনের অনুমতি না নেওয়া পর্যন্ত সরকারি কর্মকর্তা ছাড়া অন্যান্যরা লাইসেন্সধারী অস্ত্র বহন করতে পারবে না।

নির্দেশে আরও বলা হয়েছে, কোনও ব্যক্তি অ্যাসিড বা ওই জাতীয় কোনও দাহ্য পদার্থ রাখবে না, যা থেকে বিস্ফোরণের মতো কোনও ঘটনা ঘটতে পারে। এছাড়াও কেউ পাথর, নুড়ি, ভাঙা কাচের টুকরো বা খালি বোতল বহন করা যাবে না।

এমনকী এই সময়ের মধ্যে কোনও মিছিল, জনসভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা যাবে না। পাশাপাশি অযোধ্যাবাসীকে দুধ, ডাল, চাল, তেল, আলু, পেঁয়াজ, তেল এবং ডিমের মতো নিত্যপণ্য সংগ্রহ না করার জন্যও বলা হয়েছে।

এই আদেশ ছাড়াও, এই সময়ের মধ্যে কার্তিক পূর্ণিমা, চৌদ্দকোসি এবং পাঁচকোসী পরিক্রমা মেলায় মাংস, মাছ ও ডিমের কোনও বিক্রি বা ব্যবহার করা হবে না।

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!