অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে মহেশপুর সীমান্তে আটক ২৩৬

ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে গত দুই সপ্তাহে ২’শ ৩৬ জনকে আটক করেছে মহেশপুর ৫৮ বিজিবি। ভারতে নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি) ভয়ে তারা পালিয়ে এসেছেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

বিজিবি ও থানা সূত্রে জানা যায়, গত দুই সপ্তাহে মহেশপুর উপজেলার জলুলী, পলিয়ানপুর, খোসালপুর, বাগাডাঙ্গা সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সময় ৫৮ বিজিবির আওতাধীন বিওপি ক্যাম্প ৬৬ জন শিশু, ৮৪ জন পুরুষ এবং ৮৬ জন নারীসহ ২৩৬ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের ঝিনাইদহ আদালতে পাঠানো হয়েছে। মহেশপুর থানার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আটককৃতরা ভারতের আসাম ও ব্যাঙ্গালুরসহ বিভিন্ন এলাকায় বসবাস করতেন।

আটকৃতরা জানিয়েছেন, একসময় খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল অঞ্চলে তাদের বাড়ি ছিল। কয়েক দশক আগে তারা বাংলাদেশ ছেড়ে ভারতে গিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন।

৫৮ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল কামরুল আহসান বলেন, ভারতে মাইগ্রেশন হয়ে যাওয়া লোকজনের বসবাসের অসুবিধার কারণে তারা আবার বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করছেন। গত দুই সপ্তাহে শিশুসহ ২৩৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পুলিশ যতজনকে আটক করেছে অনুপ্রবেশকারীর মোট সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি। শনিবার সকালে ৫৮ বিজিবি ছয় শিশুসহ ২২ জন নারী পুরুষকে আটক করে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করেছে।

মহেশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল আলম জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে মহেশপুর থানায় মামলা হয়েছে। তাদেরকে ইতোমধ্যে ঝিনাইদহ আদালতে পাঠানো হয়েছে

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!