লেবানন থেকে দেশে ফিরছেন আরও ৩৮৩ জন বাংলাদেশি


লেবানন থেকে দ্বিতীয় দফায় স্বেচ্ছায় দেশে ফিরছেন দেশটিতে অবৈধভাবে বসবাসরত আরও ৩৮৩ জন বাংলাদেশি। আগামী ১২ ডিসেম্বর থেকে ২১ ডিসম্বরের মধ্যে ৭ টি ফ্লাইট করে তাদের দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে লেবাননে বাংলাদেশ দূতাবাস।


বাংলাদেশে দূতাবাসের বিশেষ কর্মসূচির আওতায় এর আগে গত ২৬ ও ২৭ নভেম্বর প্রথম দফায় স্বেচ্ছায় ফিরেন ১৪৪ জন অবৈধভাবে বসবাসরত বাংলাদেশি।বুধবার (৪ নভেম্বর) জারি করা দূতাবাসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ১৬ সেপ্টেম্বর দূতাবাসে নাম নিবন্ধন করা স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে ইচ্ছুক অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে দ্বিতীয় দফায় আরও ৩৮৩ জনের ভিসা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে অসুস্থ প্রবাসীও রয়েছেন।১২, ১৪, ১৭, ২১ ডিসেম্বর বিভিন্ন বিমানসংস্থার ৭টি ফ্লাইটে কয়েক গ্রুপে তাদের পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে দেওয়া তালিকার সিরিয়ালের প্রবাসীদের নিজে দূতাবাস এসে কিংবা +৯৬১-৭০৬৩৫২৭৮ বা +৯৬১-৮১৭৪৪২০৭ ফোনে যোগাযোগ করে দেশে যাত্রার দিন তারিখ নিশ্চিত করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
দ্বিতীয় দফায় ভিসা পাওয়া ৩৬৫ জনের তালিকা।
দ্বিতীয় দফায় ভিসা পাওয়া ৩৬৫ জনের তালিকা।


এ সময়ের মধ্যে যারা টিকেট নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হবেন তাদের দেশে পাঠানোর ব্যাপারে দূতাবাসের কোন দায়-দায়িত্ব থাকবে না, বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।
দূতাবাসের বিশেষ কর্মসূচির আওতায় দীর্ঘদিনের জরিমানা মওকুফ করে শুধু এক বছরের জরিমানা বাবদ মহিলাদের ২০০ শ’ মার্কিন ডলার এবং পুরুষদের ২৬৭ মার্কিন ডলার এবং বিমান ভাড়া বাবদ ৩০০ মার্কিন ডলার পরিশোধ সাপেক্ষে এই সুযোগ নিতে পারছেন অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিরা।লেবানন সরকারের সঙ্গে দীর্ঘদিন কুটনৈতিক যোগােযােগ ও দেন দরবারের মাধ্যমে অবৈধ বাংলাদেশিদের জন্য এই সুযোগের ব্যবস্থা করে বাংলাদেশ দূতাবাস। গত সেপ্টেম্বর মাসে এ কর্মসূচি শুরু হলে স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে ইচ্ছুক প্রায় ২ হাজার ৫০০ শত জন অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশি বৈরুত দূতাবাসে নাম নিবন্ধন করেন।

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!