বসুন্ধরা গ্রুপের গণমাধ্যম গুলোর ফেইসবুক পেইজের কমেন্ট অপশন উধাও!

দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন ইষ্ট ওয়েষ্ট মিডিয়া গ্রুপের প্রায় কয়েকটি মিডিয়ার ফেইসবুক পেইজের মন্তব্য অপশন বন্ধ দেখা যাচ্ছে।

এনিয়ে ফেইসবুকে সুশীল সমাজের বিভিন্ন মতবাদের মানুষ নিজেদের ফেইসবুক পেইজ ও আইডির পোষ্টের মাধ্যমে বিরূপ মন্তব্য প্রকাশ করছেন।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যার পর রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান (মুনিয়া) নামে এক তরুণীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। পরে আনভীর যাতে দেশ ত্যাগ করতে না পারে সেজন্য আদালত সেই নির্দেশও দেন। তবে দেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের বরাতে জানা যায় আনভীর কার্গো বিমান হয়ে দেশ ত্যাগ করেছেন।

চলমান এই ইস্যুতে সোস্যাল মিডিয়ায় সাধারণ মানুষ সহ সুশীল সমাজ সরব রয়েছেন। এই ঘটনায় দেশের শীর্ষস্থানীয় মিডিয়া গুলো বসুন্ধরা গ্রুপ ও পরিচালকের নাম স্পষ্ট করে সংবাদে উপস্থাপন করেনি।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক কয়েকজন সাংবাদিক জানান, দেশের বিভিন্ন মিডিয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপ প্রতিনিয়ত বিজ্ঞাপন দেয়। সেজন্য অধিকাংশ মিডিয়া এই বিষয়ে ঢালাওভাবে নিউজ করেছে। অনেকটা ইচ্ছে করেই এড়িয়ে গেছে তারা।

দেশের শীর্ষস্থানীয় বিজনেস গ্রুপ বসুন্ধরা গ্রুপের মালিকানাধীন ইষ্ট ওয়েষ্ট মিডিয়ার আওতাধীন ৬ টি সংবাদমাধ্যম রয়েছে। যেগুলো দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যম হিসেবে চিহ্নিত। তার মধ্যে বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কন্ঠ, অনলাইন পোর্টাল বাংলানিউজ২৪ডটকম ও টিভি চ্যানেল নিউজ২৪ এর ফেইসবুক পেইজের কমেন্ট অপশন বন্ধ দেখা যাচ্ছে।

একজন সিনিয়র সাংবাদিক জানান, কমেন্ট বক্সে সাধারণ মানুষের বিরূপ মন্তব্যের কারণে কতৃপক্ষ এই কাজ করেছে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। যদি টেকনিক্যাল কোন সমস্যা থাকতো তাইলে সবগুলো একসাথে সমস্যা হওয়ার কথা না। যেহেতু বসুন্ধরা গ্রুপ দেশের সর্ববৃহত একটি শিল্প প্রতিষ্ঠান। এবং এখানে দেশের শীর্ষ ছয়টি জনপ্রিয় মিডিয়া রয়েছে। তাছাড়া এই মিডিয়া গুলো সবকিছু দেখলেও নিজেদের গ্রুপের পরিচালকের বিষয় নিয়ে তারা উদাসীন। তাই সাধারন মানুষ তাদের সংবাদ মাধ্যম গুলোর ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে নিজেদের ক্ষোভ মিটানো স্বাভাবিক। এই কারণে সংবাদ মাধ্যম গুলোর ফেইসবুক পেইজের কমেন্ট অপশন বন্ধ করে দেওয়া অত্যন্ত হাস্যকর ও লজ্জার কারণ।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতেই রাজধানীর গুলশান থানায় নিহত মোসারাত জাহানের বড় বোন নুসরাত জাহান বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনা দায়ে সায়েম সোবহান আনভীরে বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার বরাত দিয়ে গুলশান জোনের উপকমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, মেয়েটির সঙ্গে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীরের সম্পর্ক দুই বছরের। আনভীর এক বছর মেয়েটিকে এই ফ্লাটে রাখেন। পরে আনভীরের সঙ্গে মনোমালিন্য হলে তিনি কুমিল্লায় চলে যান। তবে মার্চ মাসে ঢাকায় এসে গুলশানের ওই ফ্লাটে থাকা শুরু করেন।

এশিয়াবিডি/ ডেস্ক/ এমকে

আরও সংবাদ
English »