খাগড়াছড়ির কুকুর অমানবিকভাবে পাচার হচ্ছে ভারতে

খাগড়াছড়ির সীমান্তবর্তী উপজেলা দীঘিনালার বিভিন্ন হাট থেকে কুকুর ধরে ভারতে নিয়ে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে দেশটির মিজোরামের বাসিন্দা। জানা গেছে, খাওয়ার জন্য ধরে নিয়ে যাওয়া এসব একেকটি কুকুর মিজোরামের স্থানীয় বাজারে ৬ থেকে ৭ হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রায় প্রতি মাসেই দীঘিনালার বিভিন্ন হাট থেকে এমনভাবে কুকুর ধরা হচ্ছে। প্রথমে ফাঁদ পেতে কুকুরকে আটকানোর পর সরু তার দিয়ে কুকুরের মুখ বেঁধে ফেলা হয়।

এ ছাড়া প্রতিটি কুকুরের গলায় আটকে দেয়া হয় শুকনো বাঁশ। পরবর্তীতে দীঘিনালা থেকে গাড়ি ভাড়া করে এ সব কুকুর রাঙ্গামাটির মাইনী বাজারে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কাপ্তাই হৃদ হয়ে এ সব কুকুর চলে যায় মিজোরামে।

সম্প্রতি দীঘিনালা এমন অমানবিকভাবে ধরে নিয়ে যাওয়ার কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সমালোচনার ঝড় উঠে। এ সময় প্রাণী প্রেমীরা এমন আমানবিকভাবে কুকুর শিকার বন্ধের দাবি জানান।

দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ উল্ল্যাহ বিষয়টি ফেসবুকে দেখেছেন বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, এরপর কোনো শিকারি সম্পর্কে কেউ সুনির্দিষ্ট তথ্য দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও সংবাদ
error: You are under arrest !!